পরিত্যক্ত কোন ভবন নয়, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগের ছাদের পলেস্তারা ধস

সাব্বির আলম বাবু, ভোলাঃ
হঠাৎ করে ভোলার লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগের ছাদের পলেস্তারা ধসে পড়েছে। তবে ঘটনার সময় জরুরী বিভাগে রোগী না থাকায় ডাক্তার-স্টাফরা অন্য রুমে থাকায় কেউ হতাহত হয়নি। এ ঘটনায় অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন ডাক্তার ও স্টাফরা। শুক্রবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটে। তবে এখনও ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে জরুরী বিভাগের পুরো ছাদটি। যেকোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুঘর্টনা। এতে করে আতঙ্ক বিরাজ করছে জরুরী বিভাগে দায়িত্ব পালন করা ডাক্তার ও স্টাফদের মধ্যে।

লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. ফাহাদ নাসির বলেন, গত দেড় বছর ধরে জরুরী বিভাগের ছাদটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে রয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে বারবার জানানোর পরেও সঠিক কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় এ ঘটনা ঘটেছে। দ্রুত জরুরী বিভাগের ছাদটি সংস্কার করা প্রয়োজন, না হয় আরও বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

এব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ইউএইচএফপিও) ডা. মিজানুর রহমানকে একাধিকবার কল দেয়া হলেও তিনি কল রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

তবে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. মো. মহসিন খান জানান, ঘটনার সর্ম্পকে আমি শুনেছি। সামনের দিনে যেনো এধরনের ঘটনা না ঘটে সে জন্য আমরা প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *