মু.মোজাম্মেল হোসেন এর কবিতা ‘ব্যাথাতুর সন্ধ্যা’

এই মেঘাতুর আষাঢ়ী সন্ধ্যায়
এক কাপ চা হাতে মুখোমুখি;
বসে দক্ষিণের খোলা জানালায়
কত কি বলার মন চায়।

নিঝুম রাতের নিয়ন আলোয়
হিমেল পবনে ভাসিয়ে লাল দোপাট্টা,
সোনালি আঁশের মতই দোল খায় এলোকেশ ;
পুলকিত হয় শৈল্পিক মন রাতের নির্জনতায়।

সুদর্শনা তুমি মেঘ হয়ে এসো কদম্বের সন্ধ্যায়
বৃষ্টি হয়ে নামবো তপ্ত বালুচরে।
প্লাবিত হবে দহন লাগা হৃদয় তোমার
জোয়ার ভাটার অবগাহনে।

যাকে ঘিরে কল্পলোকে এতো আয়োজন!
তাঁর কাছে আজ নেই কোন প্রয়োজন।
জেব্রাক্রসে সেদিন হাত ছেড়ে,
দ্রুত পায়ে এগিয়ে উঠেছো নিশান টয়োটাতে।

ঠিক সেদিনের বলা প্রথম ছত্রের ;
গল্পের মতো প্রত্যহ নিয়ম করে।
ওসমানী উদ্যানের জারুল বৃক্ষের নিচে
আজো ঠিক ফিরে আসি সন্ধ্যা নামার আগে।

সে চঞ্চলা আঁখি দীঘল এলোকেশ
ঠিক যেন তুমি, তোমার মতো করে কেউ।
এখনো যদি এসে বলে এককাপ চায়ে
চুমুক দিবো তোমার কাঁধে হাত রেখে!

অপেক্ষায় বাড়ে আক্ষেপ।
কতটা বছর গুনে গুনে;
নিয়েছে টেনে অতীতের গহ্বরে প্রদীপ্ত যৌবন।
ঢেকেছে আঁধারে সোনালি রোদ্দুর।

জানি একদিন কেটে যাবে সব মোহ
ফিরতে চাইবে নিঝুম কোন সন্ধ্যায়।
দেখবে তুমি ছন্দপতন হবে ততোদিনে
অস্তাচলে ঘোর আঁধার নামবে চিরতরে ।

মু.মোজাম্মেল হোসেন
কবি ও প্রভাষক
ফেনী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *